মানসিক কষ্টের কথা জানিয়ে দিলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল

টানা জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকার কারণে ক্রিকেটারদের মানসিক চাপ নিয়ে প্রথম মুখ খুলেছিলেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। এ বার জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকাটা যে ক্রিকেটারদের কাছে কতটা বিভীষিকার, তার ব্যাখ্যা দিলেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। তাঁর মতে, মহামারি হওয়ায় ক্রিকেটাররা সব দিক থেকেই তীব্র মানসিক যন্ত্রণায় ভুগছেন। তার মধ্যে জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকাট যেন কখনও শেষ না হওয়া দুঃস্বপ্ন। অস্ট্রেলিয়ার এই অলরাউন্ডার কোভিডের আগেও ‘মেন্টাল হেলথ’ নিয়ে সমস্যায় পড়ছিলেন। তবে মহামারি তাঁর জীবন একেবারেই এলোমেলো করে দিয়েছেন বলে মনে করেন ম্যাক্সওয়েল।

তিনি বলেওছেন, ‘একের পর এক জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকা খুবই কঠিন। এই বলয়ের বাইরে যাঁরা থাকে, তাঁদের থেকে দূরত্ব তৈরি হয়। আর এই দুঃস্বপ্ন যেন কখনই শেষ হয় না, বরং চলতেই থাকে।’ এর সঙ্গেই তিনি যোগ করেন, ‘প্রতিটা দিন যেন একই রকম ভাবে একঘেয়ে কাটতে থাকে। বহির্বিশ্বের সঙ্গে কী ভাবে কথা বলতে হয়, তা যেন ক্রমশ ভুলতে বসেছি। মানসিক ভাবে এটা খুবই যন্ত্রণার। তবে এটাও ঠিক যে আবার খেলায় ফিরছি, নিজেদের কাজ করতে পারছি, মানুষকে আনন্দ দিতে পারছি। তবে এখন যে ভাবে জীবন চলছে, সেটা স্বাভাবিক নয়। এর প্রভাব আমাদের সম্পর্কগুলিতেও পড়ছে।’

ম্যাক্সওয়েল আইপিএলে একেবারেই সফল হননি। এই নিয়ে বুধবারই গৌতম গম্ভীর তাঁর তীব্র সমালোচনা করেছেন। তবে আরসিবি তাঁকে ১৪.২৫ কোটি টাকা দিয়ে এ বার দলে নিয়েছে। ম্যাক্সওয়েল বলেছেন, ‘কোহলি আর ডি’ভিলিয়ার্সের সঙ্গে খেলার স্বপ্ন ছিল অনেক দিনের। মাঠের বাইরে ওদের চিনি, বিপক্ষেও খেলেছি। শেষ পর্যন্ত একসঙ্গে খেলার সুযোগ পেলাম। নিলামে আমার দর নিয়ে একেবারেই অবাক হইনি।’

About admin

Check Also

আমার খুব জল তেষ্টা পাচ্ছে আর খিদে পাচ্ছে-ঃ ওয়ার্নার

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ আইপিএলের শুরুটা মোটেও ভাল করেনি। এতে অবশ্য দলের সংহতিতে এতটুকু চিড় ধরেনি। যে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *