Breaking News

ঘরোয়া ক্রিকেটের অবস্থা কেমন, সেদিকে তাকানোও জরুরি

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সবশেষ সিরিজে দ্বিতীয় টেস্টে আনকোরা এক বাঁহাতি স্পিনার ধসিয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশকে। এরপর ডমিঙ্গোকে নিয়ে প্রশ্ন আরও উচ্চকিত হয়েছে। উত্তাপটা হয়তো টের পাচ্ছেন ৪৬ বছর বয়সী এই কোচ। তবে মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কা থেকে ঢাকায় ফিরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তিনি ইঙ্গিতে বোঝালেন, দায় শুধু কোচেরই নয়। তিনি বলেন, “সত্যি বলতে, না (প্রধান কোচ হিসেবে নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে চিন্তিত কি না)। ছেলেদের সঙ্গে কাজ উপভোগ করছি। এই সেট-আপ উপভোগ করছি। অবশ্যই কিছু কাজ আছে, যেগুলো করতে হবে।”

“আমার মনে হয়, আমরা যখন এখানে থাকি না, তখন ছেলেরা কেমন সুযোগ-সুবিধা পায়, ঘরোয়া ক্রিকেটের অবস্থা কেমন, সেদিকে তাকানোও জরুরি। অবশ্যই বাজে কিছু ফল হয়েছে। তবে এখন আমি ছেলেদের সঙ্গে আরও ভালোভাবে মিশতে পারছি এবং সামনে তাকিয়ে আমি আত্মবিশ্বাসী।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াইয়ে বাংলাদেশ একেবারে তলানিতে। দল ভালো করতে না পারায় বিরক্ত ডমিঙ্গোও, ‘টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াইয়ে আমি বিরক্ত। দেখুন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে প্রথম টেস্টটি চার দিন লড়াইয়ের পর পঞ্চম দিনে হেরে গিয়েছে। নিজেদের কিছু সিদ্ধান্ত ও ভুলের কারণে ম্যাচ হাতছাড়া হয়েছে। দ্বিতীয় টেস্টেও একই ফল। শ্রীলঙ্কায় প্রথম টেস্ট ভোলার নয়। অথচ দ্বিতীয় টেস্টে আমাদের উন্নতিই নেই। হ্যাঁ সামান্য উন্নতি হয়েছে, কিন্তু লম্বা সময়ের জন্য এগোতে গেলে আমাদের আরও উন্নতি করতে হবে।’

ভবিষ্যতের জন্য ভালোমানের অলরাউন্ডারের খোঁজ করবেন ডমিঙ্গো, ‘হারলে সব সময়ই সমালোচনা হবে। অবশ্যই সাকিবকে ছাড়া দল সাজানো সব সময়ই চ্যালেঞ্জিং। হয় আপনাকে একজন ব্যাটসম্যানকে বাড়তি খেলাতে হবে, নয়তো একজন বোলার। আমি মনে করি একজন ভালো অলরাউন্ডার আমাদের দলে ভারসাম্য আনতে পারে। সাকিব অবশ্যই তাদের একজন। ছয় নম্বরে ব্যাটিং করতে পারবে এবং গতিময় বোলিংও করতে পারে এমন কাউকে আমাদের খুঁজতে হবে। দেশের বাইরে খেলতে হলে আপনাকে অলরাউন্ডার রাখতেই হবে। যেই সুযোগ আমাদের হাতে এখন নেই।’

About admin

Check Also

আমি কী এতোটাই খারাপ ? একাদশে ডাক না পেয়ে হতাশ কুলদীপ

দেশের প্রথম চায়নাম্যান বোলারকে নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটের প্রত্যাশা কম ছিল না। সেই প্রত্যাশার সঙ্গে পাল্লা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *