টেস্টে মুশফিকের নেতৃত্বে ব্যালেন্স এসেছিল কিন্তু এখন আবার পিছিয়ে যাচ্ছি

২০০০ সালের ১০ নভেম্বর আনুষ্ঠানিক ভাবে টেস্ট ক্রিকেটের অভিজাত আঙিনায় নাম লেখায় বাংলাদেশ। এখন পর্যন্ত ১১ জন অধিনায়ক টেস্টে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। কোনো অধিনায়কই সাদা পোশাকে বাংলাদেশের পারফরম্যান্সের গ্রাফটা উপরের দিকে নিয়ে যেতে পারেননি বলে মনে করেন সাবেক অধিনায়ক মোহাম্মদ আশরাফুল। তিনি নিজেও বাংলাদেশকে ১৩টি টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তার অধিনায়কত্বে একটি ড্র এবং ১২টি টেস্টে হেরেছে বাংলাদেশ। মুশফিকুর রহিম লম্বা সময় অধিনায়কত্ব করে দলকে কিছুটা এগিয়ে নিতে থাকলেও তার পর আর কেউই বাংলাদেশকে লম্বা সময় নেতৃত্ব দেয়ার সুযোগ পাননি। আশরাফুল মনে করেন কেউই অধিনায়ক হিসেবে দল গুছিয়ে নেয়ার তেমন সুযোগ পাননি।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, টেস্ট ক্রিকেটে আমরা সেভাবে এগোইনি। এখানে আমরা অনেকটাই পিছিয়ে। ওয়ানডেতে যেভাবে গত ৪-৫ বছরে উন্নতি হয়েছে। টেস্ট ক্রিকেটে সেভাবে হয়নি। উন্নতি করছিলাম, আবার পিছিয়ে যাচ্ছি। মুশফিক শেষ দিকে টিমটা খুব ভালো গোছাচ্ছিলো। টেস্টে আমরা কোনো অধিনায়কই দলকে উপরে উঠাতে পারিনি। মুশফিক ৬ বছর অধিনায়কত্ব করে একটা ব্যালেন্সে নিয়ে যাচ্ছিলো। কিন্তু এখন আবার পিছিয়ে যাচ্ছি।

বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট অধিনায়ক ছিলেন নাইমুর রহমান দুর্জয়। তিনি মাত্র ৭টি টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। এরপর খালেদ মাসুদ পাইলট (১২), খালেদ মাহমুদ সুজন (৯), হাবিবুল বাশার (১৮) এবং মোহাম্মদ আশরাফুল (১৩) নেতৃত্ব দিয়েছেন বাংলাদেশকে। এদের কেউই লম্বা সময় বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিতে পারেননি।

মাশরাফি বিন মুর্তজা একটি মাত্র টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েই ছিটকে গিয়েছিলেন। সেই ম্যাচে জয় পেয়েছিল বাংলাদেশ। তাই বাংলাদেশকে সাদা পোশাকে নেতৃত্ব দিয়ে শতভাগ জয় মাশরাফির। সাকিব আল হাসান ১৪টি টেস্টে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এর মধ্যে তিনি জয় পেয়েছিলেন ৩টি ম্যাচে। তার জয় ২১.৪২ শতাংশ।

টেস্টে আর কোনো অধিনায়ক ভগ্নাংশের হিসেবে বাংলাদেশের হয়ে এরচেয়ে বেশি টেস্ট ম্যাচ জিততে পারেননি। তবে মুশফিকুর রহিম বাকিদের চেয়ে অনেকটাই আলাদা। তিনি ৬ বছরে ৩৪টি টেস্টে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তার অধিনায়কত্বে বাংলাদেশের জয় ৭টি ম্যাচে। ম্যাচের হিসেবে তিনি অন্য সব অধিনায়কের চেয়ে এগিয়ে।

মুশফিকের পর তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদরা নেতৃত্ব দিয়েছেন বাংলাদেশকে। যদিও তাদের লম্বা সময়ের জন্য নেতৃত্ব ভার দেয়া হয়নি। গত বছর ঘটা করেই টেস্টের নেতৃত্ব তুলে দেয়া হয়েছে মুমিনুল হকের কাঁধে। তার নেতৃত্বে ৪ টেস্টের একটিতে জিতেছে বাংলাদেশ। – ক্রিকফ্রেঞ্জি

About রাসেল আহমেদ

Check Also

যদি ১১ জনই সেঞ্চুরি করে তাহলে তো রান ১১০০ হবে

বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কার প্রথম টেস্টের ৫ম দিনে ১ ঘণ্টা বাকি থাকতে চট্টগ্রাম টেস্ট ফলাফল ড্র। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *