অধিনায়ক হওয়ার আগে বোর্ড কর্তাদের জেরার মুখে পরেছিলেন কামিন্স

তিনি কি কোনও গোপন তথ্য জানেন? অতীতে কি কোনও তিক্ত ঘটনার সম্মুখীন হয়েছেন? অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক করার আগে এ রকমই প্রশ্নের সামনে পড়তে হয়েছিল প্যাট কামিন্সকে। নামের পাশে বিতর্ক না থাকার কারণেই টেস্ট অধিনায়ক করা হয়েছে তাঁকে। এমনই মত অজি সংবাদমাধ্যমের। এর আগে দুই অধিনায়ককে নিয়েই সমস্যার সামনে পড়তে হয়েছে অস্ট্রেলিয়াকে। টানা তিন বার একই ধরনের ভুল করতে রাজি ছিল না অস্ট্রেলিয়া। তাই অধিনায়ক নির্বাচনের আগে কামিন্সের থেকে কার্যত জবানবন্দি নেওয়া হয়েছে।

যদিও এ নিয়ে বেশি কথা বলতে রাজি হননি কামিন্স। বলেছেন, “হ্যাঁ, আমাকে দু’একটা প্রশ্ন জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল। তবে বিস্তারিত কিছু বলতে রাজি নই। তবে খোলাখুলি আলোচনা হয়েছে। অনেক বিষয়ে আমরা কথা বলেছি। কোনও অস্বস্তিকর পরিস্থিতি তৈরি হয়নি।” নতুন অধিনায়ক হিসেবে কামিন্সের কাছে প্রথম চ্যালেঞ্জই হতে চলেছে ঘরের মাঠে অ্যাশেজ সিরিজ। সেখানে দলকে জেতানোই তাঁর প্রথম পরীক্ষা হবে বলে মনে করা হচ্ছে। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে গেলে যা দরকার বলে মনে করছেন সমর্থকরা।

About রাসেল আহমেদ

Check Also

সকালে ঘুম থেকে উঠেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বার্তা পেয়েছি-: গেইল

ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে ক্যারিবীয় ব্যাটিং-দানব ক্রিস গেইলকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *