বৃষ্টিতে মাঠের খেলা বন্ধ, ড্রেসিংরুমের ক্রিকেটে ‘ইতিহাস’ গড়লেন বাবর আজম

‘গগনে গরজে মেঘ ঘন বরষা/ কূলে একা বসে আছি নাহি ভরসা’ মিরপুর টেস্টে এমনটাই যেন পরিস্থিতি দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশ আর পাকিস্তান দলের। বাইরে বৃষ্টি, তোড় এতটাই বেশি, যে কখন আবার মাঠে নামা সম্ভব হয় তার নিশ্চয়তা নেই। এমন অনিশ্চয়তার সময়টা ভিন্নভাবে ‘কাজে’ লাগালো পাকিস্তান দল। ড্রেসিং রুমেই ব্যাট বল নিয়ে নেমে পড়ল খেলতে, সে খেলায় ‘ইতিহাসও’ গড়ে ফেললেন অধিনায়ক বাবর আজম। তবে সেটা ব্যাট হাতে নয়, তার দাবি, বল হাতে দশ উইকেট তুলে নিয়েছেন তিনি!

ভারতের বিরুদ্ধে মুম্বাই টেস্টে আজাজ প্যাটেল এক ইনিংসের সবক’টি উইকেট তুলে নিয়েছেন। শেরে বাংলা স্টেডিয়ামের ড্রেসিংরুমে কালও ‘টেস্ট’ই খেলতে নেমেছিল পাকিস্তান, সেই টেস্টে ১০ উইকেট নিয়েছেন বলে দাবি করেন পাক অধিনায়ক বাবর।

ঝুম বৃষ্টিতে মাঠের খেলা নেই। তাই পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কাজও ছিল না। তারাও খেলোয়াড়দের সেই ম্যাচের ভিডিওই তুলে দিলেন টুইটারে। ক্যাপশনে লেখা হলো, ‘বৃষ্টি হয়ত আমাদের ছেলেদের মাঠের বাইরে রেখেছে। তবে তাঁরা ড্রেসিংরুমে একটি মজাদার ম্যাচ খেলেন। বাবর আজম প্রথমে ব্যাট করতে নামেন এবং বেশ সতর্কভাবে শুরু করেন। তবে ইমামের একটি আগুনে ডেলিভারি তার ইনিংসে সমাপ্তি টেনে দেয়।’

সেই ভিডিওর থ্রেডে সেই ‘ম্যাচের’ আরও ভিডিও প্রকাশ করা হয়। সেখানে দেওয়া হয় ম্যাচের বর্ণনাও। সেখানে লেখা হয়, ‘বাবর তার প্রতিশোধ নেন। সউদ শাকিল কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন। ইমাম ব্যাট করতে এলে ডিআরএস ব্যবহার করতে হয়। বাবর আগুনে বোলিং করেন। তার দাবি তিনি ম্যাচে ১০ উইকেট নিয়েছেন।’

উল্লেখ্য, দুই দিনে বৃষ্টির তোড়ে খেলা হয়েছে মাত্র ৬৩ ওভার। বৃষ্টির প্রভাব প্রথম দিন থাকলেও গতকাল দ্বিতীয় দিনেই তা বেশি ছিল। পুরো দিনে যে কেবল ৩৮টা বলই মাঠে গড়িয়েছে এ কারণে। গতকাল ২ উইকেট হারিয়ে ১৬১ রান নিয়ে খেলতে নামা পাকিস্তান বৃষ্টিতে দ্বিতীয় দিন খেলা বন্ধ হওয়ার আগে স্কোর বোর্ডে তোলে আরো ২৭ রান। অবশ্য আর কোন উইকেট হারায়নি তারা। বর্তমানে সফরকারীদের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১৮৮ রান। বাবর আজম ৭১ ও আজহার আলি ৫২ রানে অপরাজিত আছেন।

About ashik rakib

Check Also

বিপিএলের সর্বশেষ পয়েন্ট টেবিল দেখুন

চলতি বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসরের ঢাকা পর্ব শেষ হয়েছে। ঢাকা পর্বে মোট ৮টি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *