মেগা নিলামে এই ৩ ক্রিকেটারকে কিনতে পারে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স

আইপিএল ২০২২ মরশুমটি একটি মহৎ ব্যাপার হয়ে উঠবে, কারণ ২টি নতুন টিম এতে যোগ দেবে৷ সেইসঙ্গে ভারতীয় টি-২০ লিগের ১৫ তম সংস্করণের আগে মেগা নিলামও অনুষ্ঠিত হবে৷ ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড নিশ্চিত করেছে যে প্রতিটি আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি তাদের স্কোয়াডে সর্বোচ্চ ৪ জন খেলোয়াড়কে মেগা নিলামের আগে রাখার অনুমতি ছিল। সেই অনুযায়ী মুম্বইকে নতুন করে দল গোছাতে হবে।

অ্যারন ফিঞ্চ-ঃ টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ, ফিঞ্চের অভিজ্ঞতার দিকে তাকালে লক্ষ্ণৌ ফ্র্যাঞ্চাইজি অবশ্যই তার দিকে নজর রাখবে। তার নেতৃত্বের দক্ষতায় দল উপকৃত হতে পারে। ফিঞ্চ ২০২০ সালে আরসিবি-এর অংশ ছিলেন, কিন্তু ২০২১ মরসুমের আগে তাকে ছেড়ে দিয়েছিলেন। আহমেদাবাদের দল ফিঞ্চকে ধন্যবাদ দিয়ে শিরোপা জিততে চাইবে। ফিঞ্চের নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়া প্রথমবারের মতো আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হয়। এর প্রভাব দেখা যাবে আইপিএল ২০২২-এর মেগা নিলামে। তবে মুম্বইও টার্গেট করতে পারে ফিঞ্চকে।

নীতিশ রানা-ঃ আইপিএল কলকাতা নাইট রাইডার্সের সেরা চার ব্যাটার আছেন যারা দুর্দান্ত ফর্মে আছেন। ভেঙ্কটেশ আইয়ার কেকেআরের ব্যাট এবং বল উভয় ক্ষেত্রেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। শুভমান গিল ভালো শুরু করেছেন এবং ইনিংসটি ধরে করতে পারেন। মধ্য ওভারে রাহুল ত্রিপাঠি এবং নীতিশ রানা উজ্জ্বল ছিলেন। দুর্দান্ত ফর্মে থাকা এই ব্যাটসম্যানকে আবারও মুম্বইয়ের হয়ে মাঠে নামতে দেখা যেতে পারে।

অম্বাতি রায়ডু-ঃ টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন ডানহাতি ব্যাটসম্যান আম্বাতি এই তালিকায় রয়েছেন। আম্বাতি রায়ডু ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ায়র লীগে এখনো পর্যন্ত দুটি ফ্রেঞ্চাইজির হয়ে খেলেছেন। এই দুটি ফ্রেঞ্চাইজির মধ্যে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স আর চেন্নাই সুপার কিংসের নাম শামিল রয়েছে। আম্বাতি রায়ডুর নাম সেই হাতে গোনা খেলোয়াড়দের মধ্যে রয়েছে যারা মুম্বাই আর চেন্নাইয়ের হয়ে আইপিএল জিতেছেন। রায়ডু এই কৃতিত্ব মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের দলের হয়ে ২০১৫, আর ২০১৭য় করেছেন। ফলে আবারও মুম্বই দলে তাকে নিলামে কিনতে পারে।

About রাসেল আহমেদ

Check Also

নিলামের সময় বুক ধড়ফড় করছিল ১২ কোটির আইয়ারের

জনপ্রিয় ফ্রাঞ্চাইঝি লিগ আইপিএলের নিলাম শেষে দল গঠন থেকে শুরু করে মোটামুটি সব প্রস্ততি সম্পন্ন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *