টেনিস থেকে বিদায় নিলেন সানিয়া মির্জা

এবার টেনিস থেকে বিদায় নিলেন ভারতীয় টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। ২০০৩ সাল থেকে ২০২১ পর্যন্ত দীর্ঘ ১৯ বছরের জ্যারিয়ার জীবনের ইতি টানলেন তিনি। এই ১৯ বছর ধরে টেনিসের শীর্ষ পর্যায়ে খেলছেন হায়দরাবাদি টেনিস সেনসেশন। দ্বৈত র‍্যাঙ্কিংয়ে এক সময়ের বিশ্বসেরা তিনি, জিতেছেন ছয়টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপাও। ব্যাক্তি জীবনে তিনি পাকিস্তানি ক্রিকেটার শোয়েব মালিকের স্ত্রী।খবরটি নিশ্চিত করে দেশটির শীর্ষস্থানীয় টেলিভিশন চ্যানেল এনডিটিভি বলেন, নারী দ্বৈতের এই হারের পরই মূলত বিদায়ের ঘোষণাটা দিয়েছেন সানিয়া।

জানিয়েছেন চলতি ২০২২ মৌসুমটাই হবে তার শেষ, এরপরই টেনিস র‍্যাকেটটা তুলে রাখবেন তিনি। ভারতীয় এই টেনিস তারকা আজ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে নেমেছিলেন নারী দ্বৈতের লড়াইয়ে। তবে যাত্রাটা থেমে গেছে সেখানেই। ইউক্রেনীয় সঙ্গী নাদিয়া কিচেনকের সঙ্গে মিলে এড়াতে পারেননি হার। স্লোভেনিয়ান তামারা জিদানেস্ক ও কাইয়া ইয়ুভানেস্কের কাছে হেরেছেন সরাসরি সেটে; ৪-৬, ৬-৭ গেমে। অজি ওপেনের নারী দ্বৈত থেকে এমন বিদায়ের পেছনে সানিয়ার দায়টা অবশ্য কমই। শুরু থেকেই একের পর এক আনফোর্সড ইরোরে কাজটা কঠিন করে তুলেছিলেন কিচেনক। তাতেই অবধারিত হারের মুখে পড়েছেন সানিয়া।

একক লড়াইয়েও সানিয়ার পরিসংখ্যানটা নেহায়েত মন্দ নয়। ২০০৭ সালে টেনিস র‍্যাঙ্কিংয়ের ২৭তম অবস্থানে এসেছিলেন তিনি, যার ফলে ভারতের ইতিহাসে সর্বোচ্চ র‍্যাঙ্কিংধারী নারী টেনিস খেলোয়াড় বনে যান সানিয়া। সভেতলানা কুজনেৎসোভা, ভেরা জনারেভারা, মারিওন বারতোলি, সাবেক বিশ্বসেরা টেনিস তারকা মার্টিনা হিঙ্গিস, দিনারা সাফিনা, ভিক্টোরিয়া আজারেঙ্কাদের বিপক্ষে দারুণ কিছু জয়ও আছে তার ঝুলিতে। তবে কবজির বড়সড় এক চোট তার একক ক্যারিয়ারটাকে আর বড় হতে দেয়নি।

জান যায়, ভারতের ইতিহাসে মাত্র দুইজন নারী টেনিস তারকা ডব্লিউটিএ শিরোপা জিতেছেন, তার মধ্যে একজন সানিয়া। টেনিস র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ১০০-তে পৌঁছানো একমাত্র ভারতীয় টেনিস তারকা তিনি।

About raihan ahmed

Check Also

সন্তান যেন ফর্সা তাই বেশি বেশি আপেল খেতেন সানিয়া মির্জা

২০১৮ সালে ছেলে সন্তানের মা হন ভারতের টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা। এতোদিন পর মির্জা পরিবারের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *