শেষ ওভারে ১৫ লাগলেও সমস্যা হত না -ঃ পান্ডিয়া

টানটান উত্তেজনা। শেষ ওভার পর্যন্ত রুদ্ধশ্বাস লড়াই। বলে বলে জয়ের স্বপ্ন খোঁজা। এ যেন বিনোদন আর সব পসরা সাজিয়ে যেন বসেছিল দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম। সবাই বলবেন- এটাই তো ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ। আর রোমাঞ্চে টইটম্বুর সেই লড়াইয়ে শেষ হাসি হাসল ভারতই। পাকিস্তানের দেওয়া ১৪৮ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ব্যাট হাতে নেমে শুরুতেই ফের ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের স্মৃতি ফিরে এসেছিল ভারত শিবিরে। কেএল রাহুল, রোহিত শর্মা, বিরাট কোহলিদের হারিয়ে মারাত্মক চাপে পড়ে গিয়েছিল ভারত। কিন্তু মাঝারি মানের লক্ষ্যটা ভালোই পার করে দিয়েছেন দুই অলরাউন্ডার রবীন্দ্র জাদেজা ও হার্দিক পাণ্ডিয়া

৬ বলে প্রয়োজন ৭ রান। শেষ ওভারে পাকিস্তানের বিপক্ষে জয়ের হিসাবটা ভারতের জন্য ছিল এমন। হাতে ছিল ৫ উইকেট। কঠিন কোনো হিসাব নয়। কিন্তু বাঁহাতি স্পিনার মোহাম্মদ নওয়াজের প্রথম বলেই আউট হয়ে ফেরেন রবীন্দ্র জাদেজা। দিনেশ কার্তিক এসে মুখোমুখি হওয়া প্রথম বলেই একটি রান নিয়ে হার্দিক পান্ডিয়াকে স্ট্রাইক দিলেন। ওভারের তৃতীয় বলটি ডট দিলেন পান্ডিয়া।

ম্যাচ কি তাহলে কিছুটা হলেও জমে উঠছে—এমন একটা প্রশ্ন তখন উঠতে শুরু করেছে। ৩ বলে তখন ৬ রান প্রয়োজন ছিল ভারতের। পান্ডিয়া পরের বলেই প্রশ্নটি থামিয়ে দেন। নওয়াজের চতুর্থ বলটি রশির ওপর দিয়ে পাঠিয়ে দেন সীমানার বাইরে।

দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে তখন ‘পান্ডিয়া, পান্ডিয়া’ ধ্বনি উঠেছে। পান্ডিয়া বাঁ হাতে হেলমেট আর ব্যাট নিয়ে ডান হাতটা উঁচিয়ে ধরলেন ওপরে। তিনি যেন অনুচ্চারে ঘোষণা করলেন—জয় আমাদেরই! ধারাভাষ্যকক্ষে তখন পান্ডিয়াকে নিয়ে স্তুতি চলছে। তাঁর অলরাউন্ড পারফরম্যান্সেই যে পাকিস্তানকে ৫ উইকেটে হারাতে পেরেছে ভারত।

ম্যাচ শেষে নিজের এমন পারফরম্যান্স এবং শেষ ওভারে মারা ওই ছক্কার রহস্য জানিয়েছেন পান্ডিয়া। রান তাড়া করতে নেমে কী পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়েছেন, সে বিষয়ে পান্ডিয়া বলেন, ‘এ ধরনের রান তাড়ায় আপনাকে সব সময় ওভার ধরে ধরে খেলতে হবে। আমি জানতাম ওদের একজন তরুণ বোলার আছে। এ ছাড়া একজন বাঁহাতি স্পিনারও (নওয়াজ) আছে।’

পান্ডিয়া এরপর কথা বলেন শেষ ওভার নিয়ে, ‘আমাদের তো মাত্র ৭ রান প্রয়োজন ছিল। যদি ১৫ রানও লাগত, আমি সুযোগ নিতাম। আমি জানি ২০তম ওভারে বোলারই আমার চেয়ে বেশি চাপে থাকবে। আমি জিনিসগুলো সহজভাবে করার চেষ্টা করি।’

About রাসেল আহমেদ

Check Also

আরব আমিরাতে এমন খারাপ দিন দেখেনি রশিদ খান

এবারের এশিয়া কাপের আগে সংযুক্ত আরব আমিরাতের মাটিতে টি-টোয়েন্টি খেলেছেন ১৯টি। কিন্তু এমন দিন দেখতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *